ভিপিএন (VPN)কি এবং ব্যবহারে সতর্কতা

0
267
ভিপিএন (VPN)কি
ভিপিএন (VPN)কি

ভিপিএন (VPN)কিঃ নিজস্ব প্রাইভেসি দেয়াল বন্দী করার উদ্দেশ্যে Virtual Private Network বা VPN নানা ধরনের কাজে ব্যবহার করা হলেও এটি ব্যবহারে কিছু সতর্কতা মেনে চলা আবশ্যক। ইন্টারনেট জগতে এমন কিছু ওয়েবসাইট আছে যেগুলো কিছু জায়গা বা দেশের জন্য নিষিদ্ধ বা ব্লকড। ভিপিএন দিয়ে সেইসকল ব্লক ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করা যায়।

সাধারণত প্রাইভেসি রক্ষার জন্য ভিপিএন ব্যবহার করা উচিত। যেসকল কারনে ভিপিএন ব্যবহার করা উচিতঃ

১. বিভিন্ন শপে, বাসে, বিউটি পার্লারে ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহারের সুযোগ থাকে। এই সকল পাবলিক ওয়াইফাই ব্যবহারের নিজের প্রাইভেসি রক্ষার জন্য ভিপিএন ব্যবহার প্রয়োজন।

২. অনেক সময় আপনার আইপি আপনাকে দেওয়া গেমিং ডাটার উপর কন্ট্রোল নিতে পারে। তাই অনলাইন গেমিং স্পিড বাড়ানোর জন্য দরকার ভিপিএন

৩. প্রাইভেট ও নিরাপদে ভয়েস চ্যাটের জন্য ভিপিএন উপকারি। এটি প্রাইভেসি বজায় রাখার কার্যকরী এপস।

৪. VPN দিয়ে লোকেশন ভিত্তিক ভিডিও স্ট্রীমকে বিট দেওয়া সম্ভব।

৫. অনলাইন শপিং এ ভিপিএন ব্যবহার করে টাকা বাচানো যায়।

৬. সেনসেটিভ রিসার্চ এর জন্য VPN ব্যবহার করতে হয়।

৭. টরেন্ট ওয়েবসাইট প্রাইভেট ভাবে ব্রাউজ করার জন্য ভিপিএন ব্যবহার করতে হবে।

৮.ভিপিএন ব্যবহার করে আন্তর্জাতিক গেমিং শো যেমন ফুটবল বা ক্রিকেট খেলা দেখা যায়।

৯. যেসব অফিসে বিশেষ কিছু ওয়েবসাইট ব্যবহার বন্ধ থাকে সেসকল ওয়েবসাইট গুলো ভিপিএন এর মাধ্যমে ব্যবহার করা যায়।

১০.নিজের পরিচয় গোপন রেখে যে কারো সাথে কমিউনিকেট করার জন্য ভিপিএন ব্যবহার করতে হবে।
এছাড়াও অনলাইন ব্যাংকিং, ব্রাউজে স্পিড বাড়ানো, রেস্ট্রিকটেড ওয়েবসাইট ব্যবহার এবং নিজের প্রাইভেসির উপর নিজের কন্ট্রোল রালহার জন্য ভিপিএন ব্যবহার করতে হবে।

VPN ব্যবহারে সতর্কতা ঃ

যে ভিপিএন প্রাইভেসি রক্ষার জন্য ব্যবহার করা হয় সেই ভিপিএন কতটা নিরাপদ?? অনলাইনে ২৫% ভিপিএনের উপর তথ্য চুরির অভিযোগ রয়েছে। তাই এই সকল অ্যাপ ব্যবহারে সতর্কতা প্রয়োজন। বিশেষ করে যে সকল অ্যাপ ফ্রিতে ডাউনলোড করা যায় সেগুলো থেকে বেশি তথ্য পাচার হয়। ভিপিএন ব্যবহারে সব সময় একটি দেশ সিলেক্ট করা উচিত।

যদিও প্রিমিয়াম বা পেইড ভিপিএন ব্যবহার করা নিরাপদ তথাপি ফ্রী ভিপিএন ও ব্যবহার করা যায়। প্লে স্টোরে থাকা জনপ্রিয় ভিপিএন অ্যাপ গুলো হচ্ছে- হটস্পটশিল্ড ফ্রি, সুপার ভিপিএন, হাই ভিপিএন, হটস্পটশিল্ড বেসিক, শিফন প্রো, টার্বো ভিপিএন, ভিপিএন মাস্টার, স্ন্যাপ ভিপিএন, হোলা ও স্পিড ভিপিএনে কোনো ম্যালওয়্যার পাওয়া যায়নি। যদিও এসব অ্যাপের ক্ষেত্রে বিশেষ কিছু তথ্যের অনুমতি চাওয়া সন্দেহজনক।

অলাইন জগতে প্রাইভেসি রক্ষার জন্য ভিপিএন ব্যবহার করা হলেও এই ভিপিএনের উপর তথ্য চুরির অভিযোগ পাওয়া যায়। তাই যেন-তেন VPN এপস ব্যবহার না করে বিশ্বস্ত ভিপিএন অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে।

ই-বাইকের বিক্রি বহুগুণ বেড়ে গেছে
ইন্টারভিউ বোর্ডের কমন প্রশ্ন – ৫০টি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here