LinkedIn কি? LinkedIn কেন ব্যবহার করবেন।

0
434
LinkedIn কি

Last Updated on August 4, 2021 by Engineers Mirror

LinkedIn কি? LinkedIn কেন ব্যবহার করবেন।

LinkedIn কি : ফেইসবুক বা ইনস্টাগ্রামের মতই একটি social networking site হচ্ছে LinkedIn । যেটি মূলত পেশাজীবিদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি। লিংকড-ইন মাইক্রোসফট এর অধীনস্থ সামাজিক যোগাযোগের ন্যায় একটি ওয়েবসাইট। ২০০ টি দেশের প্রায় ৭৪০ মিলিয়নেরও বেশি পেশাদারদের তাদের কর্মজীবন ও ব্যবসায় বিকাশের জন্য লিংকডিন ব্যবহার করে।

বর্তমানে পেশাজীবিদের জন্য সবচেয়ে বড় এবং জনপ্রিয় নেটওয়ার্কিং সাইট হিসেবে LinkedIn পরিচিত। অন্যান্য সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট গুলো ইচ্ছা মত ব্যবহার করা গেলেও লিংকড-ইন সম্পূর্ণ পেশাজীবিদের জন্য যা কিনা আপনার কর্মজীবনকে প্রেজেন্ট করে। এখানে সিভি এর মত আপনার ক্যারিয়ার অবজেক্ট, এডুকেশনাল ব্যাকগ্রাউন্ড, ফ্লিড অব ইন্টারনেট, এক্সপেরিয়েন্স সব ই দেওয়া যায়।
এছাড়া এখন বেশিরভাগ ন্যাশনাল / ইন্টারন্যাশনাল প্রতিষ্ঠানগুলো LinkedIn থেকে রিক্রূট করে। যখন তারা কোনো জব সার্কুলার পোষ্ট করবে, তা আপনার ওয়াল থেকে আপনি জানতে পারবেন যদি আপনি তাদের follow করে রাখেন এছাড়াও, যেহেতু এটা প্রফেশনালদের একটা প্লাটফর্ম, এখানে আপনি প্রচুর প্রফেশনাল সাজেশন  পাবেন যা আপনার ক্যারিয়ারকে সমৃদ্ধ করতে সাহায্য করবে।আপনি বিভিন্ন গ্রুপে জয়েন করতে পারবেন যারা আপনাকে বিভিন্ন নিউজ এবং  ইনফরমেশন পেতে সাহায্য করবে। আপনি বিভিন্ন বহুজাতিক কোম্পানিকে follow করতে পারবেন যারা তাদের জব সার্কুলার কেবল এখানেই দিয়ে থাকে।
এখন আপনি যদি স্টুডেন্টও হন, যার এখনই চাকরির প্রয়োজন নেই, তা সত্বেও আপনার LinkedIn প্রোফাইল এখনই বানানো প্রয়োজন। কেননা, যখন আপনার প্রোফাইল আপনি আগে থেকেই তৈরী করে রাখবেন এবং আপনার সেক্টরের বিভিন্ন মানুষ কিংবা প্রতিষ্ঠানের সাথে কানেক্ট থাকবেন, তখন জব মার্কেটে যুদ্ধ শুরু করার আগেই আপনি এর সম্পর্কে একটা ধারনা এবং বিভিন্ন নিউজ পেয়ে যাবেন। এখানে আপনি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বড় পদের মানুষের সাথে খুব সহজেই কানেক্ট হতে পারবেন যাদের ফেসবুক ফ্রেন্ডলিস্টে আপনি কখনোই এড হতে পারবেন না।
LinkedIn কিভাবে ব্যবহার করবেন?
ব্যক্তিগত প্রোফাইল তৈরিঃ
অন্যান্য নেটওয়ার্ক সিস্টেম থেকে লিংকড-ইন এর সিস্টেম আলাদা হলেও এটি ব্যবহার করা জটিল নয়। লিংকড-ইন ব্যবহারের জন্য প্রথমেই আপনাকে আপনার একাউন্ট তৈরি করতে হবে। তারপর আপনার প্রোফাইল সাজাতে হবে। মনে রাখতে হবে এটি প্রফেশনাল। তাই এটি সাজাতে হবে প্রফেশনাল ভাবে।
নিজস্ব নেটওয়ার্ক তৈরিঃ
লিংকড-ইন ব্যবহার করে উপকৃত হওয়ার জন্য প্রোফাইল তৈরি করে বসে থাকলেই হবে না। সেই সাথে নিজস্ব নেটওয়ার্ক তৈরি করতে হবে। এই নেটওয়ার্কে আপনার সহ-পেশাদার এবং আপনার পরিচিত ইউজারদের এড করে নিতে পারেন। এখানে নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য আপনাকে আপনার ক্যাটাগরি অনুযায়ী কোম্পানির একাউন্ট বা কোম্পানির উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তাকে follow করে নিতে হবে। সেই সাথে বিভিন্ন সেমিনার, ওয়ার্কশপ,  সেলস, মার্কেটিং ইভেন্ট, নেটওয়ার্কিং ইভেন্ট ইত্যাদি তে অংশ নিতে হবে।
জব খুঁজে নেওয়াঃ
আপনি যদি ফ্রেসার হন তাহলে আপনি লিংকড-ইনে আপনার ক্যাটাগরি সম্পৃক্ত জব খুঁজতে পারবেন। এখানে আপনি আপনার কাংখিত প্রতিষ্ঠানটি রিসার্চ করতে পারবেন। আপনি এখানে চাকরি অনুসন্ধান করে সরাসরি আবেদন করে পারবেন।
কনভারসেশনে অংশগ্রহণঃ
লিংকড-ইনে আপনি খুন সহজে কনভারসনে অংশ নিতে পারবেন। এই কনভারসন গুলোতে অংশ নেওয়া মাধ্যমে আপনার পেশা সম্পর্কে সমস্যা সমূহ আলোচনা করতে পারবেন। লিংকড-ইনের আর্টিকেল গুলোতে লাইক বা কমেন্ট করা যায়। শুধু মাত্র লাইক কমেন্ট ই না ফেইসবুকের মত লিংকড-ইনে LinkedIn reaction ব্যবহার করে সহজেই কমিনিউকেট করতে পারবেন।
কন্টেন্ট পোস্ট করাঃ
মিলিয়নেরও বেশি ইউজার LinkedIn ব্যবহার করে নিজে শিখতে এবং অন্যকে শেখানোর জন্য। এখানে আপনি আপনার পেশা সম্পর্কে কন্টেন্ট পোস্ট করতে পারেন। এবং অন্যের কন্টেন্ট থেকে আপনার পেশা সম্পর্কে জ্ঞান বৃদ্ধি করতে পারেন।
মোটকথা আপনার LinkedIn প্রোফাইল আপনাকে ডেভেলপমেন্টে সহায়তা করবে। তবে এই জন্য আপনাকে ফেসবুকের মত এখানেও নিয়মিত সময় দিতে হবে। প্রতিনিয়ত পরিচিতদের LinkedIn এ খুঁজে বের করে follow করতে হবে এবং তাদের স্পেশালিটি গুলো এনডোর্স করতে হবে। কিভাবে আইডি খুলবেন সেটা জানতে ইউটিউবে কিছু ভিডিও দেখুন তাহলেই বুঝে যাবেন।
সোশ্যাল মিডিয়া বলতে শুধু ফেসবুক না অন্যকিছুও আছে এটা মাথায় রাখতে হবে।আজকেই একটা LinkedIn প্রোফাইল তৈরী করুন যা কিনা ভবিষ্যতে আপানার ক্যারিয়ার প্রতিষ্ঠায় সাহায্য করবে।
LinkedIn কি ? LinkedIn কেন ব্যবহার করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here