fbpx
ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

সহজে ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো – How to learn freelancing

Spread the love

Last Updated on December 16, 2021 by Engineers Mirror

 

সহজে ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো

অনেকে অনলাইন থেকে আয় করার জন্য ফ্রিল্যান্সিং পেশাটাকে বেছে নিয়ে থাকেন। তাছাড়া এখন অনেকেই ফ্রিল্যান্সিং করার মাধ্যমে অনলাইন থেকে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করে চলেছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক সহজে ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো ।

যারা ফ্রিল্যান্সিং( freelancing)  শিখতে চান বা যারা নতুন তারা অনেকেই এই প্রশ্নটা করে থাকেন যে ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব। তাছাড়া এটাও বলে থাকেন যে ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শুরু করব।

আর যারা সাধারণত ফ্রিলান্সিং পেশায় নিজের ক্যারিয়ার গড়তে চায় তারা অবশ্যই এই প্রশ্নগুলো করবে স্বাভাবিক।

আর যাদের প্রশ্ন মূলত ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো এই বিষয় নিয়ে তাদের জন্য আজকে আমাদের এই আর্টিকেলটি লেখা। আজকের আর্টিকেলটির মাধ্যমে আমি আপনাদেরকে ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবেন এবং ফ্রিল্যান্সিং শিখে কিভাবে ক্যারিয়ার গঠন করবেন আরো অনেক বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

তবে এর জন্য আপনাদেরকে অবশ্যই আমাদের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। তাহলে চলুন দেরী না করে শুরু করা যাকঃ

ফ্রিল্যান্সিং (freelancing) কি:

ফ্রিল্যান্সিং হলো মূলত এমন এক ধরনের প্রক্রিয়া যেখানে আপনি নিজের স্কিল ও মেধার প্রমাণ দিয়ে অন্যদের হয়ে অনলাইনের মাধ্যমে কাজ করে দিবেন।

আর সাধারনত আপনি এই পদ্ধতিতে যে ব্যক্তি কাজ করে দিবেন সেই ব্যক্তি আপনাকে এর জন্য টাকা দিবে।

ফ্রিল্যান্সিংকে বলা হয়ে থাকে স্বাধীন বা মুক্ত পেশা এখানে আপনি আপনার ইচ্ছামত যা খুশি তাই করতে পারবেন। এক কথায় এই ক্ষেত্রে আপনাকে কাজের জন্য কারো কাছে জবাবদিহি করতে হবে না।

আপনি যদি নিজেকে দক্ষ করে তুলতে পারেন তাহলে এই সেক্টরে কাজ করার মাধ্যমে চাকরির থেকেও বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন যদি আপনি এই ক্ষেত্রে সঠিক দক্ষতা সম্পন্ন একজন মানুষ হয়ে থাকেন।

ফ্রিল্যান্সিং পেশায় আপনি নির্দিষ্ট কোন কোম্পানি নির্দিষ্ট কোন মানুষ বা নির্দিষ্ট কোন দলের সাথে সংযুক্ত থাকে এবং তাদের হয়ে আপনি কাজ করতে পারবেন।

ফ্রিল্যান্সিং পেশার মাধ্যমে বা ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে যে ব্যক্তি কাজ করে জীবন নির্বাহ করে থাকে তাকে সাধারণত ফ্রিল্যান্সার বলা হয়ে থাকে।

আপনার মধ্যে যদি সঠিক দক্ষতা থেকে থাকে এবং কাজ করার মানসিকতা থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনি এই পেশার মাধ্যমে ভালো কিছু করতে পারবেন এবং এটিকে নিজের ক্যারিয়ার হিসেবে আপনি নিতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সিং কেন করবোঃ

অনেকের মনে প্রশ্ন আসতে পারে যে গতানুগতিক চাকরি না করে আমি কি জন্য ফ্রিল্যান্সিং এর মত পেশাকে বেছে নিব।

যাদের প্রশ্ন সাধারণত এই হয়ে থাকে আমি তাদের জন্য আবারো বলছি ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে এমন একটি পেশা যেখানে আপনি আপনার ইচ্ছামত কাজ করতে পারেন। আপনি নিজেই আপনার বস থাকবেন আপনি নিজেই আপনার কর্মী থাকবেন। আপনি কতটুকু কাজ করবেন এবং আপনার স্কীল কেমন তার উপর নির্ভর করে আপনার মাসিক ইনকাম ও হিসেব করে ফেলতে পারবেন।

ধরুন একজন চাকরি করছে সে ৮ ঘণ্টা কাজ করছে সে কিন্তু ইচ্ছে করলেও ৮ ঘণ্টার আগে বাসায় আসতে পারবে না। বা তার সঠিক নিয়ম মেনে অফিসে যেতে হবে আবার সঠিক নিয়ম মেনে অফিস শেষ করতে হবে।

কিন্তু আপনি যদি এই ক্ষেত্রে একজন ফ্রিল্যান্সার হয়ে থাকেন তাহলে আপনি আপনার পছন্দ মত যে কোন সময়ে চাইলে  কাজটা করতে পারেন।

ফ্রিল্যান্সিং মূলত এমন একটি পেশা যে পেশায় ইনকামের ধরাবাঁধা কোনো গণ্ডি নাই। আপনি এই ক্ষেত্রে যত বেশি কাজ করতে পারবেন ততো বেশি ইনকাম করতে পারবেন।

আপনি যদি সঠিক দক্ষতা সম্পন্ন লোক হয়ে থাকেন তাহলে আপনার এই ক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্মগুলোতে কাজের অভাব হবে না।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো ঃ

সাধারণত কয়েক বছর আগেও আমাদের নতুন কোন বিষয় সম্পর্কে জানতে হলে বুঝতেতে গেলে অনেক সময় লেগে যেত কিন্তু বর্তমানে এই অবস্থাটা বদলেছে।

বর্তমানে আমরা বসবাস করছি ইন্টারনেটের যুগে। আমরা এখন চাইলে যেকোন বিষয় ইন্টারনেটের মাধ্যমে খুব সহজেই জেনে নিতে পারব।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব এটা জানার আগে আপনাকে অবশ্যই দুটি বিষয় জেনে রাখা উচিত। এই দুটি বিষয় হচ্ছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় বিশেষ করে ফ্রিল্যান্সিংয়ের ক্ষেত্রে।

প্রথম বিষয়,

ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে মূলত এমন একটি পেশা বা এমন একটি কাজ যেখানে আপনার নির্দিষ্ট কোন বিষয়ে জ্ঞান বা দক্ষতা থাকা আবশ্যক।

আপনি চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে বিভিন্নভাবে মার্কেটপ্লেসে কাজ  করতে পারেন যেমন গ্রাফিক ডিজাইন , ওয়েব ডেভেলপমেন্টের , কন্টেন্ট রাইটিং , এসইও এর কাজ তাছাড়া আরও অনেক ধরনের কাজ রয়েছে যেগুলো আপনি টার্গেট করতে পারেন।

আপনাকে এখান থেকে যে কোন একটি বিষয় সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে হবে তারপরে আপনাকে সঠিক দক্ষতা নিয়ে ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্মগুলোতে যেতে হবে। আপনি যদি সব বিষয়ই একেবারে শিখতে চান তাহলে কিন্তু আপনি এই পেশায় ভালো কিছু করতে পারবেন না বা ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ারের আপনি সফল হতে পারবেন না।

দ্বিতীয় বিষয়,

অনেকে আছেন যারা ফ্রিল্যান্সিং এর প্রফেশনাল কাজ জানেন কিন্তু তাও তারা ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্মগুলোতে টিকে থাকতে পারেন না।

এই পেশায় আসার আগে আপনাকে অবশ্যই সাধারণ কিছু প্রশিক্ষণ নিতে হবে যাতে আপনি এখানে ভালো কিছু করতে পারেন। যেমন ধরুন-কিভাবে মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট তৈরি করবেন, কোন ফ্রিল্যান্সিং সাইটগুলোতে কাজ করবেন, ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ সঠিকভাবে করার নিয়ম কি, কিভাবে নিজেকে জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সার হিসেবে তৈরি করবেন, ইংরেজিতে ভালো দক্ষ হতে হবে।

আপনাকে এই সকল বিষয়গুলো সম্পর্কে আগে ভালোভাবে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। তাহলে আপনার পক্ষে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ গুলো আরো অনেক সহজ হয়ে যাবে।

আপনার মনে এবার এই প্রশ্নটা আসতে পারে আমরা এই কাজগুলো কিভাবে শিখব। আপনারা এই কাজগুলো খুব সহজে অনলাইনে ইন্টারনেটের মাধ্যমে শিখতে পারবেন। আপনি যে নির্দিষ্ট বিষয়টা শিখতে চান সেটি ইন্টারনেটে সার্চ করলে আপনি সে সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পাবেন।

অনলাইনে ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ ঃ

আপনারা চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ শিখতে পারেন। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং এর সমস্ত বিষয় সম্পর্কে আপনি তথ্য পেয়ে যাবেন অনলাইনের মাধ্যমে।

আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে যে অনলাইনের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখব। আমি আপনাদেরকে নিচে বিস্তারিত বলছিঃ

১.গুগল সার্চ করে

২.ইউটিউব ভিডিও দেখার মাধ্যমে

৩.Udemy তে কোর্স করার মাধ্যমে

৪.Lyanda.com

আপনার অনলাইনে এসব উপায়গুলোর মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন।

গুগল সার্চ করেঃ

আপনারা চাইলে গুগলের মাধ্যমে বিভিন্ন তথ্যের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন। আপনারা চাইলে গুগল সার্চে আপনি ফ্রিল্যান্সিংয়ের যে বিষয়গুলো সম্পর্কে জানতে চান তার বিস্তারিত তথ্য খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। আপনি এখানে বিনা খরচেই ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন যদি আপনার ফ্রিল্যান্সিং শেখার আগ্রহ টা থেকে থাকে।

ইউটিউব ভিডিও দেখার মাধ্যমেঃ 

আপনি চাইলে সরাসরি ইউটিউব ভিডিও দেখার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারেন।ইউটিউবে বিভিন্ন চ্যানেলে আপনি ফ্রিল্যান্সারদের জন্য অনেক ধরনের কোর্স দেখতে পারবেন। আপনারা চাইলে এই কোর্স গুলো দেখার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ে ধারনা নিয়ে এখান থেকে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারেন।

Udemy তে কোর্স করার মাধ্যমেঃ

আপনি যদি প্রফেশনাল ভাবে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে চান তাহলে আপনি এখান থেকে সরাসরি কোর্স করার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারেন।আপনি এখান থেকে ফ্রিল্যান্সিং এর বিষয়ে অনেক ধরনের কোর্স পাবেন যে কোষগুলোর মাধ্যমে আপনি ফ্রিল্যান্সারের কাজ শিখতে পারবেন।

এতক্ষণে অবশ্যই বুঝতে পারছেন যে আপনারা এই অনলাইন প্লাটফর্ম গুলোর মাধ্যমে খুব সহজেই ফ্রিল্যান্সিং শিখতে পারবেন। আপনার যদি কাজ করার মানসিকতা থাকে তাহলে কোন ধরনের করুন টাকা খরচ না করে আপনারা এই প্লাটফর্ম গুলো ব্যবহার করে ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন।

কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করব ঃ

১.কি কাজ করবেন ঠিক করুন

আপনারা এতক্ষণে ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা পেয়ে গেছেন।ফ্রিল্যান্সিং শুরু করার আগে আপনাকে অবশ্যই নিদির্ষ্ট কোনো কাজ সিলেক্ট দক্ষ হতে হবে।

আমি আপনাদেরকে অনেক আগেই বলেছি যে ফ্রিল্যান্সিং এ অনেক ধরনের কাজ রয়েছে। যেমন ধরুন গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ, ওয়েব ডিজাইনার এর কাজ, ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ, কন্টেন্ট রাইটিং এর কাজ, এসইও এর কাজ, তাছাড়া আরও অনেক খুঁটিনাটি কাজ রয়েছে ফ্রিল্যান্সিংয়ের ক্ষেত্রে।

তাই আপনাকে এখান থেকে যে কোন একটি বিষয় সিলেক্ট করে নিতে হবে যে আপনি কোন কাজটা করতে চান। আপনি এর মধ্যে যেই কাজটা তে সঠিক দক্ষতা সম্পূর্ণ আপনি সেই কাজটা সিলেক্ট করে শুরু করতে পারেন।

২. Marketplace  এ একাউন্ট তৈরি করে ফেলুন

আপনার কাজ করা যদি সিলেক্ট  হয়ে যায় তাহলে অবশ্যই এবার আপনাকে ফ্রিল্যান্সিং একাউন্ট এর দিকে মন দিতে হবে। অর্থাৎ আপনি যেকোনো একটি ভালো ওয়েবসাইটে বা ফ্রিল্যান্সিং সাইটে আপনি আপনার অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ফেলুন।

আপনি যে ওয়েবসাইটে আপনার ফ্রিল্যান্সিং একাউন্ট তৈরি করুন না কেন অবশ্যই আপনার অ্যাকাউন্টটি প্রফেশনাল হতে হবে। কেননা আপনার একাউন্ট দেখার মাধ্যমেই অনেক ক্লায়েন্ট আপনার কাজের ধরন সম্পর্কে বুঝতে পারবে এবং আপনার অ্যাকাউন্টের যদি প্রফেশনাল না হয় তাহলে আপনি কাঙ্খিত কাজ পাবেন না।

তাই আপনি যতই দক্ষতা সম্পন্ন একজন ফ্রিল্যান্সার হয়ে থাকুন না কেন অবশ্যই আপনার অ্যাকাউন্টটির প্রফেশনাল রূপ দিতে হবে।

৩.কাজের রেট নির্ধারণ করতে হবে

আপনার ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসে যদি অ্যাকাউন্ট তৈরি করা হয়ে যায় তাহলে আপনার এবার কাজের রেট টা নির্ধারণ করতে হবে। অর্থাৎ আপনি আপনার কাজের প্রতি কত টাকা নিবেন আপনি কোন কাজের জন্য কত টাকা নিবেন সেই সম্পর্কে।

আপনি সাধারণত আপনার কাজ প্রতি কত টাকা নিয়ে থাকেন সেটা আপনার প্রোফাইলের ডেসক্রিপশন বক্সে উল্লেখ করুন যাতে কোন ক্লায়েন্ট যদি আপনাকে কাজ দেওয়ার ইচ্ছা পোষণ করে সে আপনার প্রোফাইল দেখে বুঝতে পারে আপনার কাজের ধরন সম্পর্কে।

৪.সঠিক সময়ে সঠিক কাজ করতে হবে

অনেক ফ্রিল্যান্সার ব্যর্থ হওয়ার কারণ কিন্তু এটা। তারা অনেক কাজ পেয়ে থাকে কিন্তু সেই কাজ গুলো সঠিক সময়ে তারা সাবমিট করতে পারেন না।

যার ফলে ক্লায়েন্ট তাদের ওপর বিরক্ত হয়ে যায় এবং পরবর্তীতে তাদের আর কাজ দেয় না। তাই অবশ্যই আপনাকে সঠিক সময়ে সঠিক কাজ ডেলিভারি করার অভ্যাস করতে হবে।

আপনি যদি সঠিক সময়ে কাজ ডেলিভারির না করতে পারেন তাহলে ক্লায়েন্ট কোনদিনই আপনার কাজের প্রতি খুশি হবে না আর সে পরবর্তীতে আপনার সাথে আর কাজ করতে চাইবে না। তাই অবশ্যই এটি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় যে সঠিক সময়ে সঠিক কাজ।

ফ্রিল্যান্সিং হিসেবে আপনি কোন কাজগুলো করবেনঃ

১.কনটেন্ট রাইটিংঃ অনলাইনে কনটেন্ট রাইটিং কে সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। আপনি যদি সঠিকভাবে কনটেন্ট রাইটিংয়ের কাজটা শিখতে পারেন তাহলে আপনি ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে এই কাজের জন্য ক্লায়েন্টের কাছ থেকে ভালো চার্জ করতে পারেন।

তবে অবশ্যই এই ক্ষেত্রে আপনাকে ইংরেজি কনটেন্ট রাইটিং এর কাজ শিখতে হবে কেননা বাংলা কন্টেন্ট রাইটিং এর কাজ করে আপনি বেশি ভালো কিছু করতে পারবেন না। যদি সঠিকভাবে এই কাজটি শিখতে পারেন এবং ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে যদি কাজ করতে পারেন তাহলে অবশ্যই আপনি কন্ট্রোল অ্যান্টিক এর মাধ্যমে নিজের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।

২.গ্রাফিক্স ডিজাইনঃ বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্মগুলোতে গ্রাফিক ডিজাইন এর যথেষ্ট মূল্য রয়েছে। গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজের জন্য গ্রাফিক্স ডিজাইনাররা অনেক টাকা  চার্জ  করে থাকে।

তাই আপনি যদি গ্রাফিক্স ডিজাইনে কাজটি সঠিকভাবে শিখতে পারেন এবং ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণে এই কাজগুলো আপনি পান তাহলে আপনি এই কাজের মাধ্যমেই ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।

বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি কাজ হচ্ছে গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ। তাই আপনি চাইলে এই কাজটিও শিখতে পারেন।

৩.ওয়েব ডেভেলপমেন্টঃ আমাদের কোন কিছু জানার প্রয়োজন হলে আমরা ইন্টারনেটে সার্চ করে থাকি।তারপরে আমরা ইন্টারনেটের মাধ্যমে সে বিষয়গুলো সম্পর্কে জানি। আর আমরা ইন্টারনেটের সার্চের মাধ্যমে যে ওয়েবসাইটগুলোতে যাই সেই ওয়েবসাইটগুলো মাঝেমধ্যে ডেভলপমেন্টের দরকার হয়ে থাকে।

আর এর জন্য সাধারণত ওয়েব ডেভলপারদের দরকার হয়। তাহলে বুঝতেই পারছেন যে অনলাইনে ওয়েব ডেভেলপারদের কেমন চাহিদা। তাই আপনি চাইলে ওয়েব ডেভেলপার এর কাজ শিখতে পারেন এবং এই কাজের মাধ্যমে নিজের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গঠন করতে পারেন।

৪.ওয়েব ডিজাইনারঃ ওয়েব ডিজাইনারের কাজ হচ্ছে মূলত কোন ওয়েবসাইটকে সুন্দরভাবে ডিজাইন বা কাস্টমাইজ করে ইউজার ফ্রেন্ডলি করে তোলা।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে ওয়েব ডিজাইনারের কাজের অনেক চাহিদা রয়েছে।তাই আপনি চাইলে এই ওয়েব ডিজাইনারের কাজের শিখতে পারেন এবং এই কাজের মাধ্যমে আপনি আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার গঠন করতে পারেন।

৫.ডিজিটাল মার্কেটিংঃ ডিজিটাল মার্কেটিং হয়েছে বর্তমানে অনলাইনে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি কাজ। বিশেষ করে যাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে তাদের জন্য অনলাইনে ব্যবসা করার জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আর তারা সাধারণত বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল মার্কেট খুঁজে থাকেন যারা তাদের ডিজিটাল মার্কেটিং এর সার্ভিস দিয়ে থাকে। তাই আপনি চাইলে একজন ডিজিটাল মার্কেটিং হিসাবে নিজের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করতে পারেন এবং এখান থেকে আপনি আপনার জীবন গড়তে পারেন।

৬.অ্যাপ ডেভলপারঃ ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো শুধু এটা জানলে হবে না।আপনাকে জানতে হবে কোন কাজগুলো করার মাধ্যমে একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হিসেবে ক্যারিয়ার গঠন করা যায়।

সাধারনত ফ্রিল্যান্সিংয়ের যত কাজ রয়েছে তাদের মধ্যে ডেভলপের কাজটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং জনপ্রিয় একটি কাজ।

তাই আপনি যদি একজন ফ্রীল্যান্সার হিসেবে ক্যারিয়ার গঠন করতে চান তাহলে অ্যাপ ডেভলপার এ কাজটি আপনি বেছে নিতে পারেন।

আশা করি আজকের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি যারা পড়েছেন তারা অবশ্যই বুঝতে পেরেছেন ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো এবং ফ্রিল্যান্সিং এর কাজ কোথায় পাবো আরো অনেক বিষয় সম্পর্কে।

তারপরেও যদি আপনাদের এই বিষয় সর্ম্পকে আর কোন ধরনের প্রশ্ন থেকে থাকে আমাদেরকে সরাসরি কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আর আমাদের এই পোস্টটি ভাল লেগে থাকলে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

 

ফ্রীল্যান্সিং এর ১৫ টি টপ ওয়েবসাইট-(Freelancing Websites Bangladesh)

অনলাইন আয়ের সেরা ১০ টি উপায়-(Online Income Tips Bangla)

ফ্রীল্যান্সিং কি এবং কিভাবে শুরু করবেন (What is Freelancing?)

Leave a Comment

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!